ট্রান্সলেট আর্টিকেলে, রিরাইটিং কি এডসেন্স পাওয়া যায়?

কর্তৃক প্রযুক্তি সারাদিন
0 মন্তব্য 471 ভিউজ

বর্তমানে কনটেন্ট রাইটিং কে সবাই এক ধরনের পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছে। হরহামেশাই কন্টেন্ট রাইটিং এর জন্য দারুন প্ল্যাটফর্ম গড়ে উঠেছে । ইংরেজি ভাষার পাশাপাশি এখন বাংলা ভাষায় কনটেন্ট রাইটিং এর জনপ্রিয়তা রয়েছে৷

এখন যে কেউ ইচ্ছা করলেই নিজের ওয়েবসাইটে, ব্লগ, আর্টিকেল অথবা কনটেন্ট লিখে আয় করতে পারে, গুগল এডসেন্সের সহায়তা নিয়ে। গুগল এডসেন্স বিশ্বের অন্যতম এবং জনপ্রিয় এড নেটওয়ার্ক। যেটি এডভারটাইজ এর মাধ্যমে আসা অর্থ ব্লগ সাইটের লেখকদের সাথে শেয়ার করে।

অনেকের কাছেই এডসেন্স যেন একটি সোনার খনি । এবং সেই কারণেই সবাই একটি ওয়েবসাইট খুলে সেখানে এডসেন্স এর জন্য আবেদন করতে ইচ্ছুক। তবে আর্টিকেল অথবা কনটেন্ট রাইটিং একটি সৃজনশীল কাজ৷ এতে প্রচুর পরিমানে সময় দিতে হয় । এবং তার পাশাপাশি প্রচুর পরিশ্রম দিতে হয়।

তবে গুগল এডসেন্স পেতে হলে আপনাকে প্রথমেই মাথায় রাখতে হবে, আপনি যে কনটেন্ট অথবা আর্টিকেলগুলো আপনার ওয়েবসাইটে লিখে চলেছেন সেগুলো যেন আপনার নিজের লেখা হয় অর্থাৎ কনটেন্টগুলো যাতে ইউনিক হয়৷

অর্থাৎ আপনি ইচ্ছে করলে কোন ওয়েবসাইট অথবা কারো কাছ থেকে কনটেন্ট চুরি করে লিখতে পারবেন না । তাহলে সেটি প্লেগারিজম হয়ে যাবে৷ এবং গুগোল যখন আপনার ওয়েবসাইটটি রিভিউ করবে তখন যদি কোন প্লেগারিজম পোস্ট থাকে তাহলে সেই ক্ষেত্রে আপনি এডসেন্স এর জন্য উত্তীর্ণ হতে পারবেন না।

তাহলে কি আর্টিকেল রিরাইটিং করা যেতে পারে?

বাংলা আর্টিকেল সরাসরি রিরাইটিং করার জন্য তেমন কোনো কার্যকর ওয়েবসাইট নেই। তবে ইংরেজি আর্টিকেল রিরাইটিং করার জন্য বেশ কয়েকটি ওয়েবসাইট রয়েছে৷ আপনি যদি কোন ইংরেজি লেখা রিরাইটিং করে আপনার ওয়েবসাইটে লিখেন তাহলে বাক্য গুলো বেশ গুরুগম্ভীর হয়ে যাবে৷ এবং তা পাঠকদের পড়তে অসুবিধা হবে৷

গুগল এমন আর্টিকেল চায় যা পাঠকদের পড়তে সুবিধা হবে৷ সুতরাং আপনি যদি ইংরেজিতে লেখা রিরাইটিং করেন তাহলে সেই ক্ষেত্রে অ্যাডসেন্স পাওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে৷

বাংলা আর্টিকেলে আপনি ইচ্ছে করলে দুই তিনটা ওয়েবসাইট ভালোভাবে রিসার্চ করে নিজের ভাষায় আর্টিকেল লিখতে পারেন। এতে আর্টিকেল ইউনিক হলো এবং রিরাইটিং হওয়ার কোনো সম্ভাবনা থাকেনা।

আচ্ছা গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করা যাবে না?

বাংলার ক্ষেত্রে যদি গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করেন তাহলে বাক্যগুলো অর্থ পূর্ণ হবে না। এবং পাঠকদের পড়তে বেগ পেতে হবে। সুতরাং বাংলা আর্টিকেল এর ক্ষেত্রে গুগল ট্রান্সলেটর ব্যবহার না করাই ভালো৷ তবে বাংলা অথবা অন্য কোন ভাষা থেকে যদি আপনি ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করেন তাহলে সেই ক্ষেত্রে বাক্যগুলো বেশ অর্থপূর্ণ হবে৷ তবে এক্ষেত্রে একটি সমস্যা রয়েছে!

গুগল ট্রান্সলেট ব্যাবহার করে যদি আর্টিকেল ট্রান্সলেট করে থাকেন তাহলে সেটি সহজে গুগলের সার্ভার এ সংরক্ষিত হয়ে থাকবে। যে তথ্যটি কেবল ব্যবহারকারী এবং প্রতিষ্ঠান বাদে আর দেখতে পাবে না ।

গুগল ট্রান্সলেট এবং গুগল এডসেন্স দুইটি যেহেতু গুগলের হাতে সুতরাং ইচ্ছে করলে আপনি পোস্টটি ট্রান্সলেট করেছেন কিনা সেটিই তাদের সার্ভার থেকে সহজেই দেখা যাবে৷ সুতরাং সাবধান থাকবেন!

পরিশেষে,

আর্টিকেল লেখা একটি কষ্টকর কাজ । তবে” কষ্ট না করলে কেষ্ট মেলে না ” বলে একটা কথা রয়েছে। সুতরাং আপনি যদি সোনার খনি গুগল এডসেন্স পেতে চান তাহলে প্রথমেই আপনাকে কষ্ট করে আর্টিকেলগুলো লিখতে হবে । আপনার যদি আর্টিকেল লেখার প্রথম থেকে কোনো অভিজ্ঞতা না থাকে তাহলে কোন সমস্যা নেই। কোন কিছু লিখতে হলে প্রথমেই পড়তে হয়৷ ভালো করে একটা জিনিস জানতে হয়৷ লেখার ধরন আপনার মনের ভেতরে গেঁথে নিতে হয়৷ সুতরাং বেশি বেশি করে আর্টিকেল পড়ুন৷ এবং তারপর নিজে থেকে সৃজনশীল মনোভাব নিয়ে কোন কিছু লেখার চেষ্টা করুন৷ দেখবেন এক সময় আপনি সফল হবেন।

তাহলে আর দেরি কিসের আজ থেকে লেখা শুরু করে দিন!

0 মন্তব্য
0

তুমিও পছন্দ করতে পার

মতামত দিন