শেখা যাবে ‘এসো শিখি’ অ্যাপে

কর্তৃক প্রযুক্তি সারাদিন
0 মন্তব্য 629 ভিউজ

তবে কি শিক্ষা, নাকি প্রযুক্তি? প্রশ্ন করি এস এম তানভীরকে। সোহেল আহমেদকে সঙ্গে নিয়ে তাঁর প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছে শিক্ষাবিষয়ক অ্যাপ ‘এসো শিখি’। ঢাকায় প্রথম আলো কার্যালয়ে ২৬ জানুয়ারি সে অ্যাপ নিয়েই কথা হয় তানভীরের সঙ্গে। কখনো তিনি তাঁদের প্রতিষ্ঠানটিকে শিক্ষা, আবার কখনো প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হিসেবে উল্লেখ করছিলেন। প্রশ্নটা তখনই করা। উত্তরে তানভীর জানালেন, দুটোই।

শিক্ষাপ্রযুক্তি বা ইংরেজিতে এডুটেক নামে প্রযুক্তির যে ঘরানা রয়েছে, এসো শিখি ঠিক তাই। আবার ই-লার্নিংও বলা যেতে পারে। কাজটা হলো প্রযুক্তির মাধ্যমে শিক্ষামূলক বিষয়বস্তু ছড়িয়ে দেওয়া। ইউটিউবের এ যুগে এমন কাজ তো অনেকেই করছেন। খুঁজলে অনেক অ্যাপও মিলবে। সেগুলোর সঙ্গে এসো শিখিকে মেলাতে নারাজ তানভীর। বললেন, ‘আমরা চাই কোচিং ক্লাসের বিকল্প হতে। একজন শিক্ষার্থী কোচিংয়ে গিয়ে যে সুবিধা পাবে, তার সবই পাবে আমাদের অ্যাপটিতে।’

সুবিধা একই হলে বরং কোচিংই ভালো। প্রশ্ন করার জন্য সামনে অন্তত একজন শিক্ষককে তো পাওয়া যাবে। যুক্তি উপস্থাপনের চেষ্টা করি। তানভীর তা মানতেও নারাজ। জানালেন, ‘প্রশ্ন করার জন্য কোচিংয়ে আপনি ২৪ ঘণ্টা শিক্ষক পাবেন না। অথচ একজন শিক্ষার্থীর যখন ইচ্ছা, সেটা ছবি তুলে হোক বা লিখে পাঠিয়েই হোক, প্রশ্ন করলে উত্তর পাবে এসো শিখিতে। তাও ২৪ ঘণ্টা।’

বিনা মূল্যে বেশ কিছু ই-লার্নিং অ্যাপ পাওয়া গেলেও এসো শিখি ব্যবহারে কিছু খরচ আছে। মানুষ কেন টাকা খরচ করে অ্যাপটি ব্যবহার করবে? এবার সুবিধার তালিকা বলতে শুরু করলেন এসো শিখির এই সহপ্রতিষ্ঠাতা। তিনি মনে করেন, মূল পার্থক্যটা হতে পারে মানে। এসো শিখির ভিডিওগুলোতে যেকোনো বিষয় বেশি ইন্টার্যাক্টিভ করে উপস্থাপন করা হয়েছে বলে দাবি তাঁর। কয়েকটি ভিডিও দেখালেন। মোটর কীভাবে কাজ করে, তা মুখে বলার পাশাপাশি অ্যানিমেশন আকারে কাজের ধরন খুঁটিনাটি দেখিয়ে দেওয়া হলো তাতে।

অ্যাপটিতে বিষয়ভিত্তিক ভিডিওগুলো ক্রম অনুযায়ী রয়েছে। মানে পদার্থবিদ্যার ক্লাসগুলো অধ্যায় অনুযায়ী একের পর এক পাওয়া যাবে। ক্লাস শেষে দেওয়া যাবে পরীক্ষাও। এখন পর্যন্ত এসএসসি, এইচএসসি, বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি এবং চাকরির প্রস্তুতিমূলক বিষয়গুলোর ভিডিও পাওয়া যাবে। ক্রমে পরিসর বাড়ানোর কথা জানালেন তানভীর।

অ্যাপটি ব্যবহার করতে হলে বিষয় অনুযায়ী মাসে গুনতে হবে ৬০ থেকে ৮০ টাকা। প্রথম সাত দিন অবশ্য কোনো টাকা দিতে হবে না। এক বছরের জন্য মূল্য পরিশোধ করলে সঙ্গে কুরিয়ার সার্ভিসে সংশ্লিষ্ট বইও পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে জানালেন তানভীর। যোগ করলেন, ‘কেউ যদি ইন্টারনেট সংযোগ নিয়ে সমস্যায় থাকে, তবে আমরা আমাদের ভিডিও ক্লাসগুলো মেমোরি কার্ডেও পাঠিয়ে দিয়ে থাকি। এখন পর্যন্ত সাড়ে তিন হাজারের বেশি গ্রাহক রয়েছে তাঁদের অ্যাপের।’ অ্যাপটি পাওয়া যাবে eshosikhi.com ঠিকানার ওয়েবসাইটে।

শুরুতেই বলেছি, এসো শিখির দুজন সহপ্রতিষ্ঠাতা। এস এম তানভীর প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বে রয়েছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জিন প্রকৌশল নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। আর সোহেল আহমেদ একাধারে চেয়ারম্যান ও প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা। চুক্তি অনুযায়ী ক্লাস নেন শিক্ষকেরা। এর বাইরেও ৪০ জনের এক কর্মী বাহিনী রয়েছে তাঁদের।

0 মন্তব্য
0

তুমিও পছন্দ করতে পার

মতামত দিন