ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে বাড়ছে মৃত ব্যাক্তিদের প্রোফাইল, সবচেয়ে বেশি আতঙ্ক ফেসবুকে

কর্তৃক মাহমুদুল হাসান
0 মন্তব্য 594 ভিউজ

প্রযুুক্তি নির্ভর এই যুগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ফেসবুক। জনপ্রিয়তার দিক থেকে শির্ষে থাকলেও ফেসবুক সম্পর্কে ভুয়া অ্যাকাউন্ট, তথ্য পাচারের অভিযোগ বা ভুয়া তথ্য ছড়ানোর অভিযোগও রয়েছে। কিন্তু বর্তমানে সাইবার বিশেষজ্ঞদের মাথা ব্যাথা বাড়িয়ে দিয়েছে মৃত ব্যাক্তিদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট। সমস্ত ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে মৃত ব্যাক্তিদের অ্যাকাউন্টের সংখ্যা আস্তে আস্তে বাড়ছে। সংখ্যাটা দাঁড়িয়েছে প্রায় আট হাজারের ও বেশি। দিন পর দিন সেটা আরও বাড়ছে। বিশেষজ্ঞদের মতে সময়ের সাথে সাথে জীবিতদের থেকেও মৃতদের প্রোফাইলে ভরে যাবে ফেসবুক সহ অন্যান্য ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম। তবে অন্য সকল ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম থেকে ফেসবুকে ব্যবহারকারী বেশি হওয়ায় এর ঝুকি বেশি।

সাইবার বিশেষজ্ঞদের হিসাবে, বর্তমানে ফেসবুকে গ্রাহকের সংখ্যা রয়েছে প্রায় ২০০ কোটির বেশি। এছাড়া হোয়াটস অ্যাপে রয়েছে ১৫০ কোটি, এবং ইনস্টাগ্রামে প্রায় ৩৩ কোটি। ফেসবুকের নিয়ন্ত্রণে থাকা হোয়াটস অ্যাপ ও ইনস্টাগ্রামের আলাদা প্রাইভেসি পলিসি রয়েছে, যা ফেসবুকের ক্ষেত্রে নেই। ফলে ফেসবুকের কোন গ্রাহকের যদি মৃত্যু হয়, তাহলে তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট একই রকমভাবে থেকে যায়। অথবা মৃত্যুর পর মৃত ব্যাক্তিদের অ্যাকাউন্ট তাঁর নিজের কোন আত্মীয় বা বন্ধু নিয়ে নেয় অথবা  পুরোপুরি চলে যায় হ্যাকারদের কাছে। এক সমীক্ষার হিসেবে, বিশ্বজুড়ে প্রায় পাঁচ কোটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে হ্যাকারদের দখলে। তার মধ্যে বেশিরভাগ অ্যাকাউন্ট হচ্ছে মৃত ব্যাক্তিদের।

ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গের সহপাঠী অ্যারন গ্রিনস্প্যানের মতে, ফেসবুকে রয়েছে ১০০ কোটি নকল বা ভূয়া অ্যাকাউন্ট। যা ফেসবুকের মোট গ্রাহকের প্রায় ৫০ শতাংশ। গ্রিনস্প্যান ‘রিয়েলিটি চেক’ নামে ৭০ পাতার একটি রিপোর্টে এসব তথ্য প্রকাশ করেছিলেন। রিপোর্টে তিনি আরও বলেছিলেন, ‘নকল বা ভূয়া অ্যাকাউন্ট ব্যহারকারীদের নিয়ে যে কতটা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় অন্যান্য ব্যবহারকারীদের, তা নিয়ে চিন্তিত ফেসবুক। এই সকল নকল বা ভূয়া অ্যাকাউন্ট ব্যহারকারীদের মাধ্যমে ফেসবুকের অনেক গ্রাহকই প্রতারিত হয়েছেন এবং হচ্ছেন। এছাড়া এসব অ্যাকাউন্টের ফলে ভুয়া তথ্য ছড়িয়ে বা বিভিন্ন হয়রানি মূলক কর্ম কান্ডের মাধ্যমে সাধারণ ব্যবহারকারীদের সাথে সাথে দেশের প্রশাসনও এর ফাঁদে পড়েছে।

বিদ্রঃ প্রতিটি মানুষের উচিৎ নিজেদের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের অ্যাকাউন্টের প্রতি খেয়াল রাখা। নিজেরদের অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে অন্য কেউ যেন কোন অপরাধ মূলক কর্মকান্ডে লিপ্ত হতে না পারে সে জন্য আরও বেশি সচেতন হতে হবে।

0 মন্তব্য
0

তুমিও পছন্দ করতে পার

মতামত দিন