ওয়াইফাই’র পরিবর্তে আসছে লাইফাই

কর্তৃক মাহমুদুল হাসান
0 মন্তব্য 5391 ভিউজ

সারা বিশ্বে ইন্টারনেটের ব্যবহার বৃদ্ধির কারনে ওয়াই-ফাই (Wireless Fidelity) নেটওয়ার্কের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে৷ ওয়াই-ফাই একটি তারবিহীন (ওয়্যারলেস) প্রযুক্তি যা মুঠোফোনের মতো কাজ করে। এই নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীরা সর্বত্রই খুব সহজেই তারবিহীন অবস্থায় ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব ইন্টারনেট জগতে প্রবেশ করতে পারেন। কিন্তু ইন্টারনেটর গতি কম হওয়ার কারণে ওয়াই-ফাই ব্যবহারকারীদের বহু সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে৷ এই সমস্যা সমাধানে প্রযুক্তিবিদরা নিয়ে আসছে নতুন প্রযুক্তি লাইফাই (Light-Fidelity)। এর ফলে তারবিহীন ইন্টারনেটের সমস্যা সমাধান হবে বলে মনে করছেন অনেকেই৷

নতুন প্রযুক্তি লাইফাইঃ
নতুন প্রযুক্তি লাইফাই এমন এক প্রযুক্তি যা কানেক্টিভিটির বা যোগাযোগের ক্ষেত্রে ওয়াইফাই-এর থেকে প্রায় ১০০ গুণ এগিয়ে থাকবে৷ লাইফাই কাজ করবে এলইডি বালবের সাহায্যে৷ এই প্রযুক্তি ২০১১ সালে প্রথম আবিষ্কার করেন প্রফেসর হারাল্ড হস (Harald Haas)। তিনি দেখিয়েছিলেন যে কিভাবে ভিএলসি বা ভিসিবল লাইট কমনিকেশন এর সাহায্যে যোগাযোগ স্থাপন করা যায়। লাইফাই প্রযুক্তিতে অনেক বেশি গতিতে ডেটা ট্রান্সমিট করার জন্য এলইডি বালব এবং লাইট স্পেকট্রাম ব্যবহার করা হয়েছে৷ লাইফাইয়ের এড়িয়া কানেক্টিভিটি পাওয়া যাবে প্রায় ১ কিলোমিটার রেডিয়াস৷

লাইফাই ব্যবহারের সুবিধাঃ
১। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে ১০০ জিবিপিএস পর্যন্ত গতি পাওয়া যাবে। এছাড়া ওয়াই-ফাইয়ের তুলনায় লাইফাইয়ের ফ্রিকুয়েন্সি ১০,০০০ গুন বেশি।

২। লাইফাইয়ের ফ্রিকুয়েন্সি ওয়াই-ফাইয়ের তুলনায় অনেক বেশি হওয়ায় ব্যবহারকারি বৃদ্ধি পেলেও তাদের মধ্যে ইন্টারনেট সংযোগে ধীর গতি হবে না।

৩। ওয়াই-ফাই বা ওয়্যারলেস এর সিগন্যাল দেওয়াল ভেদ করে যেতে পারে ফলে আশে পাশের প্রতিবেশীরাও খুব সহজেই ইন্টারনেট পেয়ে যায়। কিন্তু লাইফাই এলইডি বালব এবং লাইট স্পেকট্রাম লাইট টেকনোলজি হওয়াতে সিগন্যাল ঘরের দেওয়াল ভেদ করে যাওয়ার সম্ভবনা নেই।

৪। বর্তমানের যে সকল আধুনিক ডিভাইস আছে (স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, টিভি) খুব সহজেই ডাটা আদান প্রদান এর পাশাপাশি একে অন্যের সাথে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে সংযোগ স্থাপন করা যাবে।

লাইফাইয়ের ভবিষ্যৎ সম্ভাবনাঃ
লাইফাই একটি সম্পূর্ণ নতুন প্রযুক্তি। এখনই হয়ত ব্যবহার করার সুযোগ হবে না তবে আশা করা যাচ্ছে আগামি ১০ বছরে লাইফাইয়ের ব্যবহার পুরুপুরি ভাবে শুরু হয়ে যাবে। এর ফলে আগামি দিনে লাইফাই ওয়াইফাইয়ের জায়গা দখল করে নিতে সক্ষম হবে। লাইফাইয়ের এড়িয়া খুব বেশি না হবার কারনে একটি নির্দিষ্ট জায়গা থেকেই ব্যবহার করতে হবে।

0 মন্তব্য
0

তুমিও পছন্দ করতে পার

মতামত দিন