volgograd-arena-stadium
recent ফিচার

রাশিয়া বিশ্বকাপের ভেন্যু পরিচিতি – আজকের ভেন্যু ভলগোগ্রাদ অ্যারিনা

ফুটবল মহাযজ্ঞে মাতার অপেক্ষায় গোটা বিশ্ব, প্রস্তুতি শুরু করেছে প্রায় সব দলগুলো, প্রস্তুত আয়োজক রাশিয়া। বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যেই ৯টি স্টেডিয়াম তৈরী করেছে রাশিয়া। সংস্কার করা হয়েছে আরো তিনটি স্টেডিয়াম। রাশিয়া বিশ্বকাপের ভেন্যু পরিচিতি – আজকের ভেন্যু ভলগোগ্রাদ অ্যারিনা। ভলগোগ্রাদ অ্যারিনা স্টেডিয়ামটি ২০১৮ বিশ্বকাপ উপলক্ষে নুতন তৈরি করা হয়েছে।

বিশ্ব-রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ এক স্থান স্তালিনগ্রাদ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জার্মানি ও সোভিয়েত ইউনিয়নের ৬ মাস ব্যাপী যুদ্ধ চলেছিল এই শহরে। পরবর্তীতে শহরটি ভোলগোগ্রাদ নামে পরিচিতি পায়। ভলগা নদীর তীর ঘেঁষা এই শহরটি রাশিয়ার শিল্প ক্ষেত্রে রেখে আসছে গুরুত্বপূর্ণ অবদান। ২০১৮ বিশ্বকাপের অন্যতম ভেন্যু শহরের স্টেডিয়াম ভলগোগ্রাদ অ্যারেনা।

চীনের বেইজিংয়ের বার্ডস নেস্ট অলিম্পিক স্টেডিয়ামের সঙ্গে বহুদিক থেকে অনেকটা মিল ভলগোগ্রাদ অ্যারেনার। রাশিয়ার দক্ষিণে ভোলগা নদীর পাড়ে ভলগোগ্রাদ শহর। সেখানেই সাবেক সেন্ট্রাল স্টেডিয়ামের স্থানে নির্মিত হয়েছে ভলগোগ্রাদ এরেনা। ভলগোগ্রাদ অ্যারেনার বিশেষ বৈশিষ্ট্য, বাইরের আবরণ জালিকা বিশিষ্ট এবং ছাদটা তাদের সাহায্যে ঝুলানো। ১৯৫৮ সালে নির্মিত পুরনো ভলগোগ্রাদ স্টেডিয়াম ভেঙ্গে ২০১৪ সালে নতুন করে আধুনিক ভেন্যু নির্মাণকাজ শুরু হয়। স্টেডিয়ামটি তৈরি করতে খরচ হয়েছে ৪৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

গ্রুপ পর্বে সবমিলিয়ে চারটি ম্যাচ হবে এ স্টেডিয়ামে। ১৮ জুন ইংল্যান্ড-তিউনিসিয়া ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপে অভিষেক হবে স্টেডিয়ামটির। ২২ জুন নাইজেরিয়ার প্রতিপক্ষ চমক দেখানো আইসল্যান্ড। ২৫ জুন আফ্রিকার দেশ মিশর ও এশিয়ার দেশ সৌদি আরব। মিশরের মোহাম্মেদ সালাহকে ঘিরেই শহরের ফুটবলপ্রেমীদের নিশ্চয়ই থাকবে বাড়তি আগ্রহ।

এক নজরেঃ
ভেন্যুঃ ভোলগোগ্রাদ অ্যারেনা
শহরঃ ভোলগোগ্রাদ
দর্কশক ধারণক্ষমতাঃ ৪৫৫৬৮

worldcup-Banner-2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *